Generator Rex Bangla Origin জেনারেটর রেক্স সিরিজ রিভিউ

সময়টা ২০১০। তখনও বিশ্বব্যাপী সবচেয়ে জনপ্রিয় চ্যানেলের মধ্যে অন্যতম কার্টুন নেটওয়ার্ক অসাধারণ কিছু শো এর প্রচারের মাধ্যমে কোটি কোটি শিশু-কিশোরদের দিন রঙিন করে রাখতো বর্তমানের মত জঘন্য রিবুট এবং লি/বারেল কর্পোরেট বিজনেস পলিসির সাথে তাল মিলিয়ে শুধুমাত্র অর্থ উপার্জনের বদলে। 
#Generator_Rex (A forgotten Superhero)
সেই সময়কার একটা জনপ্রিয় এবং বর্তমানে অনেকটাই বিস্মৃত হয়ে যাওয়া একটা শো ছিল জেনারেটর রেক্স

Generator Rex Bangla Origin
(image credit: CN/Man of Action)

কার্টুন নেটওয়ার্কের স্বর্ণযুগের শেষ সময়কার এক সাক্ষী হিসেবে এসেছিলো। 

⚙️Rex Salazar. এক ১৬-১৭ বছর বয়সী চটপটে, দুরন্ত, দুঃসাহসী এক কিশোর। অন্যান্য সাধারণ মানুষের থেকে অনেক আলাদা, অনেক স্পেশাল সে। কারণ তার বিশেষ কিছু দুর্ধর্ষ ক্ষমতা রয়েছে। এর মধ্যে প্রধান হলো শরীরের বিভিন্ন থেকে বিভিন্ন দানবীয় আকৃতির অস্ত্র এবং বাহনে রুপান্তর করতে সক্ষম সে এবং এগুলো আক্রমণাত্মক বা প্রতিরক্ষামূলক কাজে ব্যবহার করে লড়াইয়ের ময়দানে।
 
তার এই ক্ষমতা একটা বিশ্বব্যাপী ঘটা দুর্যোগের ফলে লাভ করে। পৃথিবীর এক কোণায় একটা গোপন রিসার্চ ফ্যাসিলিটিতে কিছু গবেষক মানবজাতির সমস্যা নিরসন এবং জীবন সহজ করতে মাইক্রোস্কোপিক আকারের প্রোগ্রামযোগ্য রোবট বা যন্ত্রের উদ্ভাবন নিয়ে কাজ করতে থাকে যেগুলোকে বলা হয় ন্যানাইটস। 
কিন্তু হঠাৎই ঘটা একটা দূর্ঘটনায় পুরো পৃথিবীর চিত্র রাতারাতি আমূল বদলে যায়। সেই রিসার্চ ফ্যাসিলিটিতে ঘটা বিস্ফোরণের ফলে পুরো পৃথিবীতে ছড়িয়ে পড়ে অসম্পূর্ণ প্রোগ্রাম সম্পন্ন ন্যানাইটস আর সেগুলো প্রায় প্রতিটা মানব এবং জীবদেহে প্রবেশ করে পৃথিবীর প্রত্যেক কোণায়। 
⚙️স্বাভাবিকভাবে এই ন্যানাইট মানবদেহে দৃশ্যত কোন ক্ষতিই করে না কিন্তু মাঝেমধ্যেই বিভিন্ন মানুষ এবং প্রাণীর দেহে সুপ্ত ন্যানাইট আচমকাই তাদের বহনকারীর দেহে মিউটেশন ঘটিয়ে বিভিন্ন রকমের এবং আকার-আকৃতির ভয়াবহ দানবে পরিণত করে তান্ডব চালাতে থাকে। ন্যানাইটের ফলে মিউটেটেড হওয়া এমন মানুষ বা জীবদের বলা হয় EVO (Exponentially Variegated Organism).
ন্যানাইটের ফলে সৃষ্টি হওয়া এমন প্রতিকূল পরিস্থিতি মোকাবেলায় একটা স্পেশাল মিলিটারি অর্গানাইজেশন গঠন করা হয় যার নাম প্রভিডেন্স। 
এই প্রভিডেন্সের অধীনেই তাদের গোপন অস্ত্র হিসেবে কাজ করে রেক্স সালাজার। তার সাথে সহকারী হিসেবে অর্গানাইজেশনের আরো কিছু গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র কাজ করে। যারা হল Agent six যে কিনা একজন টপ ফিল্ড এজেন্ট, Doctor Rebecca Holiday চিফ রিসার্চার, Bobo Haha একজন EVO যে কিনা মানুষের মতই বুদ্ধিমান এবং কথা বলতে সক্ষম একটা বানর, এবং তাদের লিডার White Knight. 
রেক্সের অস্ত্র তৈরির ক্ষমতার জন্যই যে সে এত স্পেশাল তা কিন্তু না? তার অন্যতম উল্লেখযোগ্য ক্ষমতা হচ্ছে যে সে এক্টিভ ন্যানাইটগুলো নিঃসরণ করার মাধ্যমে ইভোতে পরিণত হওয়া বেশিরভাগ মানুষ এবং প্রাণীকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে পারে এবং মূলত এই ক্ষমতার জন্যেই সে প্রভিডেন্সের সবচেয়ে বড় অস্ত্র কারণ ন্যানাইটের ফলে ইভোতে পরিণত হওয়ার বিরুদ্ধে আর কোন প্রতিষেধক আবিষ্কার করা সম্ভব হয় নি।
⚙️যদিও রেক্সের একটা সমস্যা হচ্ছে ন্যানাইট ইভেন্ট তথা সেই ল্যাব বিস্ফোরণের ফলে বিশ্বব্যাপী ন্যানাইট ছড়িয়ে পড়ার আগে কোন স্মৃতিই তার মনে ছিল না শুধুমাত্র তার নামটুকু ছাড়া। আর সিরিজের কাহিনী শুরু হয় ন্যানাইট ইভেন্টের ৫ বছর পরে। অর্থাৎ রেক্সের স্মৃতি বলতে আছে শুধুমাত্র এই পাঁচ বছরই। প্রভিডেন্স হেডকোয়ার্টারই তার বাড়ি আর কলিগ এজেন্ট সিক্স, ডক্টর হলিডে, বোবো হাহা এবং সবচেয়ে কাছের সমবয়সী Noah Nixon এরাই হল তার পরিবার। 
পৃথিবীতে সেই গুটিকয়েক মানুষের মধ্যে একজন যে কিনা তাদের ন্যানাইটের ফলে ঘটা মিউটেশনের ওপর নিয়ন্ত্রণ রয়েছে এবং এর ফলে নিজের মিউটেশনকে ক্ষমতায় রুপান্তরিত করে একজন সুপারহিরো রুপে আবির্ভূত হয়েছে। 
তার এই ব্যতিক্রমধর্মী ইভো ক্ষমতা এবং পরবর্তীতে সিরিজে ঘটা বিভিন্ন ঘটনার মাধ্যমে জানা যায় যে সেই ন্যানাইট ইভেন্টের সঙ্গে সে এবং তার অতীত সরাসরি জড়িত। এবং পুরো সিরিজের একটা গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো রেক্সের নিজের অতীত উদঘাটন করা যা সিরিজের শুরু থেকে একদম শেষ পর্যন্ত ধীরে ধীরে উন্মোচিত হতে থাকে।
⚙️সিরিজের মূল প্লট এটাই। বেশি উন্মোচন করে স্পয়লার দিতে চাই না। সিরিজটাতে ১৯-২০টা করে এপিসোড নিয়ে মোট তিনটি সিজন বের হয়। অ্যানিমেটেড বা কার্টুন সিরিজটা তৈরির পেছনের কারিগর Man OF Action. 
এটা সেই স্টুডিও যারা বিশ্বজয়ী কার্টুন সিরিজ বেন টেনের জন্মদাতা। এবং এই সূত্রে সিজন তিনে বেন টেনিসনের সাথে রেক্সের দুর্দান্ত একটা ক্রসওভার এপিসোড হয় ৪৬ মিনিটের “Heroes United” টাইটেলের এক এপিসোডে। যারাই এপিসোডটা দেখেছে তাদের মগজে একদম গেঁথে গেছে এই এপিসোডটা। 
⚙️সিরিজ এগোনোর সাথে ধীরে ধীরে রেক্সের ক্ষমতা বিভিন্নভাবে আরো বিবর্তিত আর বিকশিত হতে থাকে বিভিন্ন ঘটনাচক্রে। সেগুলোও গল্পের প্রতি দর্শকের আকর্ষণ আরো জোরদার করে। 
স্বাভাবিকভাবে রেক্সের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের মত সিরিজটাও লাইট টোনের গল্পের ধাঁচ নিয়েই এগোয় কিন্তু সময়ে সময়ে হালকা একটু গাম্ভীর্যতা নিয়ে আসতেও ভোলে না। 
⚡Powers and Abilities: 
রেক্সের ক্ষমতাগুলোকে নিম্নলিখিতভাবে লিপিবদ্ধ করা যায়।
 .Enhanced EVO curing
 ·Machine manifestation
 ·Nanite communication
 ·Enhanced technopathy
 ·Skilled acrobat
 ·Enhanced condition
 ·Hand-to-hand combat
 ·Unlimited nanite creation
 ·Hyper adaptibility
 ·Enhanced awareness
পোস্ট লিখেছেনঃ শাহরিয়ার ইমতিয়াজ অভি ভাইয়া।

Leave a Comment

Total Views: 319

Scroll to Top