নেটফ্লিক্স স্ট্রিমিং সার্ভিস রিভিউ

Disclosure: This content is reader-supported, which means that if you click on some of our links. then we may earn a commission.

নেটফ্লিক্স হলো অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং সার্ভিসের একক রাজা । ২০১০ সালে Netflix নিজেদের ভিডিও স্ট্রিমিং সার্ভিস চালু করার পরে থেকে, দ্রুত জনপ্রিয় হতে থাকে তরুণ সমাজের মধ্যে ।

যার ফলাফল আজকে পুরো বিশ্বের ১৯০+ টি দেশের ১৫০+মিলিয়ন গ্রাহক নিয়ে বিশ্বের শীর্ষতম VOD (ভিডিও অন ডিমান্ড) এবং OTT (ওভার দ্যা টপ) সার্ভিসে পরিণত হয়েছে ।

{tocify} $title={Table of Contents}

Netflix Online Streaming Service Review

netflix-original-content-logo-reviewhax.blogspot.com
( Copyright Courtesy: Netflix/internet )

নেটফ্লিক্সে আপনি মাসিক চার্জ দিয়ে দেখতে পাবেন হাজার হাজার সিনেমা ও টিভি সিরিজ । তবে এখানে দেশ অনুযায়ী লাইসেন্স থাকায় কিছুটা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় । যেমম আপনি যুক্তরাষ্ট্র কোন সিনেমা দেখতে পারলেও সেটি ভারতে দেখতে পারবেন না । অন্যদিকে Netflix Originals এর সকল কন্টেন্ট পুরো বিশ্বেই একযোগে দেখা যায় ।

 

নেটফ্লিক্স কি? নেটফ্লিক্সের বিস্তারিত

নেটফ্লিক্স প্রায় ২২ বছর পুরনো কোম্পানি। আজকের নেটফ্লিক্স কিন্তু আগে এই রকম ছিল না । Reed Hastings এবং Marc Randolph তারা ১৯৯৭ সালে নেটফ্লিক্স কে প্রতিষ্ঠান করেছিল ডিভিডি রেন্টাল সার্ভিস হিসেবে । মানে তারা আগে মাসিক সাবস্ক্রিপশনের মাধ্যমে গ্রাহকদের নিকট ডিভিডি (DVD) এর মাধ্যমে বিভিন্ন সিনেমা পৌঁছে দিত । পরবর্তীকালে ২০১০ সালের দিকে তারা এই সেবা ছেড়ে দেয় ।

 

এই সেবার বদলে তারা গ্রাহকদের নিকট অনলাইনে মাসিক চার্জ রেখে বিভিন্ন সিনেমা এবং টিভি সিরিজ বিক্রি করত । প্রথম দিকে নেটফ্লিক্স বিভিন্ন কোম্পানির নিকট হতে কন্টেন্ট লাইসেন্স নিয়ে বিক্রি করত । পরবর্তীতে ২০১২ সালে নেটফ্লিক্স নিজে থেকেই কন্টেন্ট বানানোয় মনোযোগ দেয় ।

এর মাধ্যমেই ধীরে ধীরে পরিণত এবং বাড়তে থাকে নেটফ্লিক্সের অরিজিনাল কন্টেন্ট এবং আমরা পাই আজকের বিশাল অরিজিনাল কন্টেন্ট সমৃদ্ধ নেটফ্লিক্স । তবে মজার ব্যাপার হলো আপনি চাইলে এখনো রেন্টালের মাধ্যমে বিভিন্ন সিনেমা এবং সিরিজ দেখতে পারবেন । যেটা ডিভিডি কিংবা ব্লুরে ডিস্কের মাধ্যমে প্রদান করা হয় ।

 

নেটফ্লিক্সের প্রতিদ্বন্দ্বী স্ট্রিমিং সার্ভিস সমুহ

২০১৬ সালে নেটফ্লিক্স বিশ্বের ১৯০টি দেশে নিজেদের সেবা চালু করে । এর মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চালু থাকা একাধিক স্ট্রিমিং সার্ভিসের সাথে প্রতিযোগিতা শুরু করে । অন্যদিকে নেটফ্লিক্স এর আধিপত্য হটাতে ২০১৭ সালে ডিজনি তাদের নিজস্ব স্ট্রিমিং সার্ভিসের ঘোষণা দেয় । যেটি বর্তমানে ডিজনি প্লাস নামে পরিচিত । Disney Plus নিজেদের সেবা চালুর দুইমাসের মধ্যেই নেটফ্লিক্সের শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠেছে ।

 

ডিজনি এর পাশাপাশি Warner Media Company এর অঙ্গপ্রতিষ্ঠান ডিসি এন্টারটেইনমেন্ট তাদের সুপারহিরো ভিত্তিক অ্যাপ DC Universe Streaming Service নিয়ে আসে । যার ফলে নেটফ্লিক্স ধীরেধীরে ডিসির প্রায় সকল লাইভ অ্যাকশন সিনেমা ও অ্যানিমেশন মুভি সিরিজ হারাচ্ছে । শুধু তাই নয় দ্যা অফিস কিংবা সাউথ পার্ক এর মত জনপ্রিয় সিরিজ বানানো প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান nbcuniversal তাদের নিজস্ব স্ট্রিমিং সার্ভিস Peacock নিয়ে আসছে ।

 

যার ফলে স্ট্রিমিং বাজারে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে । তবে এই লড়াই পুরোপুরিভাবে জমবে না । যতক্ষণ পর্যন্ত না Warner Media Company তাদের HBO ব্রান্ডে তাদের স্ট্রিমিং সার্ভিস HBO MAX না নিয়ে আসে ।

অন্যদিকে আইফোন নির্মাতা অ্যাপল ইনকর্পোরেশন তাদের নিজস্ব স্ট্রিমিং সেবা অ্যাপল টিভি প্লাস নিয়ে এসেছে । যেটা কিনা অন্যান্য স্ট্রিমিং সার্ভিস থেকে সাশ্রয়ী মাসিক চার্জ মাত্র $৪.৯৯ ডলার । অন্যদিকে নেটফ্লিক্সের মাসিক চার্জ সর্বনিম্ন $৯ ডলার, ডিসি ইউনিভার্স $৭ ডলার, ডিজনি প্লাস $৬ ডলার, HBO MAX $১৫ ডলার , PEACOCK $৫ এবং $১০ ডলার।

Netflix Original Content List

নেটফ্লিক্স ২০১২ সালে নিজেদের তৈরি প্রথম সিরিজ প্রকাশ করে যার নাম Lilyhammer । তখন থেকেই নেটফ্লিক্স নিজেরাই সিনেমা এবং টিভি সিরিজ তৈরিতে মনোযোগ দেয় । তারা নিজেদের তৈরি কন্টেন্ট কে Netflix Original হিসেবে ব্রান্ডিং করে থাকে ।

২০১৩ সালে তারা "হাউজ অফ কার্ডস" নামক সিরিজ বানিয়ে প্রচুর প্রশংসা কুড়ায় । এর পর থেকে তারা তাদের অরিজিনাল কন্টেন্ট তৈরিতে মনোযোগ দেয় । এর ফলে আমরা একের পর এক অসাধারণ সিরিজ পাই । যেমন: স্ট্রেনজার থিংস কিংবা ডার্ক সিরিজ ইত্যাদি ।

 

নিচে নেটফ্লিক্সের অরিজিনাল মুভি সিনেমা এবং সিরিজের বিস্তারিত তালিকা দেওয়া হলো ।

 

Stranger Things: ২০১৬ সালে প্রচারিত হয় নেটফ্লিক্সের সবচয়ে জনপ্রিয় সিরিজ স্ট্রেঞ্জার্স থিংস । যেটা মুক্তির পরে সবচেয়ে বেশি দেখা সিরিজগুলির একটি হয়েছিল । এরই রেশ ধরে গত বছর মুক্তি পেয়েছে Stranger Things Season 3 । ইতোমধ্যে সিজন ৪ এর ডেট অ্যানাউন্সমেন্ট হয়ে গেছে । খুব তাড়াতাড়ি স্ট্রেঞ্জার্স থিংস সিজন ৪ পেয়ে যাবো আমরা ।

 

13 Reasons Why: ২০১৬ সালে প্রচারিত হয় নেটফ্লিক্সের আরেকটি জনপ্রিয় সিরিজ 13 Reasons Why । যেটা মুক্তির পরে সবচেয়ে বেশি সমালোচিত সিরিজগুলির একটি হয়েছিল । যা এখনো সমালোচনায় রয়েছে । গেল বছর প্রকাশিত হয়েছে 13 Reasons Why এর সিজন ৩ বিস্তারিত এখান থেকে পড়ে নিন

 

Dark (2017): ২০১৭ সালে প্রচারিত হয় নেটফ্লিক্সের সবচয়ে জনপ্রিয় সিরিজ ডার্ক । যেটা মুক্তির পরে সবচেয়ে বেশি দেখা সিরিজগুলির একটি হয়েছিল । শুধু তাই নয় জার্মানভাষী এই সিরিজ জিতে নিয়েছিল একাধিক নমিনেশন ।

এরই রেশ ধরে গত বছর মুক্তি পেয়েছে Dark Season 2 । মুক্তির পরেই সকল মুভি ও সিরিজ লাভারদের নিকট আলোচনার পাত্র হয়ে উঠে এই সিরিজটি । ইতোমধ্যে Dark সিজন ৩ এর ডেট অ্যানাউন্সমেন্ট হয়ে গেছে । খুব তাড়াতাড়ি ডার্ক সিজন ৩ পেয়ে যাবো আমরা ।

The Witcher: কি ভাবছেন একটি ভিডিও গেমের কথা এখানে টেনে আনছি কেন? তাহলে বোধহয় আপনি দ্যা উইচার উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি, ২০১৯ সালে প্রচারিত হয় আরেকটি জনপ্রিয় সিরিজ THE WITCHER । যেটা মুক্তির পরে সবচেয়ে বেশি আলোচিত-সমালোচিত সিরিজগুলির একটি হয়েছিল ।

বিশেষ করে এই সিরিজকে গেম অফ থ্রোন্স এর সাথে তুলনা করায় । যা এখনো অনলাইন এ শোরগোল রয়েছে । তবে অনেক সিনেমা বোদ্ধা একে নেটফ্লিক্সের গেম অফ থ্রোন্স বলে অভিহিত করে থাকে । গত ডিসেম্বরে প্রকাশিত হয়েছে দ্যা উইচার সিরিজটি

 

Ozark: কখনো কি আপনি ভেবেছেন মেক্সিকান কার্টেলদের হয়ে যারা কাজ করেছে কিংবা তাদের কে ধোকা দিলে কি পরিণীত হয় তা জানেন? না জেনে থাকলে ওযারক সিরিজটি আপনার জন্য মাস্ট ওয়াচ । এতে শুধু কার্টেলদের কেই নয়, সেই সাথে একটি পরিবারের সার্ভাইভ করে বেচে থেকা নিয়ে এই সিরিজ । বর্তমানে দুই সিজন বের হয়েছে যা নেটফ্লিক্সে দেখা যাচ্ছে । খুব তাড়াতাড়ি Ozark Season 3 প্রকাশিত হবে ।

 

The Haunting of Hill House: দ্যা হান্টিং অফ হিল হাউস সিরিজটি ২০১৮ সালে হ্যালুউইন এ প্রচারিত হয়েছে । এই সিরিজটি তৈরি করা হয়েছে একই নামের উপন্যাস থেকে । যেখানে দেখা যায়, “হিল হাউস নামের বাড়িতে একটি পরিবারের সদস্যদের বেড়ে উঠার গল্প । যেটার সাথে তাদের অতীত, বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ জড়িয়ে এবং মিলে রয়েছে । নেটফ্লিক্সের হরর সিরিজের মধ্যে বলা চলে Haunting of Hill House জনপ্রিয়ের শীর্ষে । খুব তাড়াতাড়ি এর দ্বিতীয় সিজন প্রকাশিত হবে ।

 

Chilling Adventures of Sabrina: নেটফ্লিক্সের আরেকটি জনপ্রিয় সিরিজ চিলিং আডভেঞ্চার্স অফ সাবরিনা সিরিজ হলো অন্য আরেকটি জনপ্রিয় সিরিজ RiverDale এর স্পিন অফ সিরিজ । প্রথমে সিরিজের নাম Greendale রাখা হয়েছিল কিন্তু প্রোডাকশন জটিলতায় কারনে সেই নাম পরিবর্তন করে Chilling Adventures of Sabrina রাখা হয় । এখানে Sabrina Spellman নামক এক অর্ধেক মানুষ অর্ধেক শয়তান মেয়ের জীবনী নিয়ে । বর্তমানে এর দ্বিতীয় সিজন প্রচার হচ্ছে । খুব তাড়াতাড়ি Chilling Adventures of Sabrina Part 3 Trailer প্রকাশিত হবে ।

 

নেটফ্লিক্সের মাসিক প্যাকেজ এবং সাবস্ক্রিপশন চার্জ

নেটফ্লিক্স বর্তমানে তিনটি ভিন্ন প্যাকেজ প্লান চালু রেখেছে । Basic, Standard এবং Premium । যা যথাক্রমে ১০,১২ এবং ১৬ ডলার চার্জ করে ।

 
 

যেভাবে বাংলাদেশ থেকে নেটফ্লিক্স ব্যাবহার করতে হয়

যদিও বাংলাদেশে অফিশিয়ালি নেটফ্লিক্স চালু নয় । তবে আশা করা যায় খুব তাড়াতাড়ি তারা বাংলাদেশে এই সার্ভিস চালু করবে । এখন আপনারা অনেকেই বলবেন যে বাংলাদেশে তো নেটফ্লিক্স দেখা যায় তাহলে চালু হলো না কিভাবে? ।

এর উত্তর হচ্ছে আপনি যখন নেটফ্লিক্সে পেমেন্ট করেন তখন কিন্তু আপনি ইউএস ডলার মানে বিদেশি অর্থ এবং ইউএস এর সমমান মাসিক বিল দেন । কিন্তু যখন নেটফ্লিক্স অফিশিয়ালি বাংলাদেশে চালু হবে তখন আপনি নেটফ্লিক্সের মাসিক বিল বাংলাদেশি টাকায় দিতে পারবেন । এটাই হলো অফিশিয়ালি চালু হওয়ার প্রক্রিয়ার মধ্যে একটি ।

 

যেভাবে বাংলাদেশে বসে নেটফ্লিক্স অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন

বাংলাদেশ এবং অন্যান্য দেশ থেকে নেটফ্লিক্স অ্যাকাউন্ট তৈরি করা খুবই সহজ এবং অভিন্ন। প্রথমেই আপনাকে netflix.com এ যেতে হবে । কিংবা গুগল প্লে স্টোর বা অ্যাপল অ্যাপ স্টোর থেকে Netflix App ডাওনলোড করতে হবে । এর পরে sign up এ ক্লিক করতে হবে । এখন একটি ফ্রম আসবে । সেখানে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য যেমন: মোবাইল নম্বর, ইমেইল অ্যাড্রেস, ঠিকানা, ক্রেডিট/ডেবিট কার্ডের তথ্য, পাসওয়ার্ড ইত্যাদি দিয়ে ফ্রমটি পুরন করে নিচে থাকা টিক বক্সে ক্লিক দিতে হবে ।

 

এর পরে সাইন আপ বাটনে ক্লিক করতে হবে । আপনার মোবাইল নম্বর এবং ইমেইল অ্যাড্রেস ভেরিফাই এর জন্য, মোবাইলে একটি পিন কোড এবং ইমেইলে ভেরিফাই লিংক আসবে । ইমেইলের ভেরিফাই লিংক করে ইমেইল ভেরিফাইড করে নিতে হবে, সেই সাথে মোবাইলে আসা পিন কোড আপনার অ্যাকাউন্ট এ গিয়ে যথাস্থানে আপনার পিন কোড বসিয়ে মোবাইল নম্বর ভেরিফাইড করতে হবে । এর ফলে আপনার নেটফ্লিক্সের অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়ে যাবে ।

 

নেটফ্লিক্সের অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়ে গেলেই কিন্তু ব্যাবহার করতে পারবেন না । এর জন্য আপনাকে একটি প্লান বেছে নিতে হবে । যেমন: আপনি কোন প্যাকেজ নিতে চাচ্ছেন কতদিনের জন্য ইত্যাদি । যদিও আপনি প্রথম একমাস বিনামূল্যে নেটফ্লিক্স সেবাটি ব্যাবহার করতে পারবেন এর পরে আপনাকে যেকোন একটি প্যাকেজ কিনতে হবে । বিস্তারিত জানতে উপরে আমাদের নেটফ্লিক্স প্যাকেজ সমুহ অংশটি পড়ুন ।

 

নেটফ্লিক্স যে দেশে চালু রয়েছে

২০১৫ সাল নাগাদ নেটফ্লিক্স শুধুমাত্র কয়েকটি দেশে চালু ছিল । কিন্তু নিজ দেশে প্রতিযোগিতা বেড়ে যাওয়ায় নেটফ্লিক্স অন্যান্য দেশেও নিজেদের সেবা চালুর উদ্দেগ নেয় । ২০১৬ সালে দুইবছরের মধ্যে নেটফ্লিক্স বিশ্বের ১৯০টি দেশে নিজেদের সেবা চালু করার পরিকল্পনা করে। যার ফলে প্রায় পুরো বিশ্বেই নেটফ্লিক্সের অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং সেবা চালু হয় ।

 

নেটফ্লিক্স যেদেশে বন্ধ বা নিষিদ্ধ

এশিয়ার কয়েকটি দেশে নেটফ্লিক্স এর সেবা বন্ধ বা নিষিদ্ধ । এর মধ্যে চীন অন্যতম বড় দেশ । চীনে লোকাল অ্যাপ ব্যতীত অন্য দেশের কোন স্ট্রিমিং অ্যাপ ব্যাবহার করা মুশকিল । অন্যদিকে মার্কিন সরকারের নির্দেশে ফলে মধ্যপ্রাচ্যের Syria এবং North Korea তে আপাতত বন্ধ আছে এর সেবা । অন্যদিকে কিছুদিন আগেই Crimea নামক দেশে এর সেবা বন্ধ করে দেওয়া হয় আমেরিকান সরকারের জোরাজুরিতে ।

 

Netflix প্রোফাইল ব্যাবহার

নেটফ্লিক্সের সার্ভিসে আপনি একটি একাউন্ট দিয়ে পুরো পরিবার ব্যাবহার করতে পারবেন । কারন এখানে, একটি একাউন্ট এর মাধ্যমে একাধিক প্রোফাইল তৈরি করা যাবে । শুধু তাই নয় ভিন্ন ভিন্ন ডিভাইসের মাধ্যমে ৪ জন একসাথে এক সময়ে Netflix এ স্ট্রিম করতে পারবে । তবে এর জন্য নেটফ্লিক্স ফ্যামিলি কিংবা Premium প্লান লাগে । যার ফলে একটি একাউন্ট এর মাধ্যমেই পুরো পরিবার কভারেজ করতে পারবেন ।

 

অন্যদিকে প্রিমিয়াম প্লানে একসাথে চারটি ডিভাইসে সকল কন্টেন্ট স্ট্রিম করা যাবে । এর ফলে আপনি যখন Lost in Space Season 2 সিরিজটি দেখবেন, তখন আপনার পরিবারের অন্য কেউ 13 Reasons Why এর Season 3 দেখতে পারবে ।

 

নেটফ্লিক্স যেভাবে দেখতে পারবেন

আপনি আপনার কম্পিউটার এ ওয়েব ব্রাউজার এ নেটফ্লিক্স ব্যাবহার করতে পারবেন । সেই সাথে আপনি যদি উইন্ডোজ ১০ এর ব্যাবহারকারি হন তাহলে মাইক্রোসফট এর উইন্ডোজ স্টোরে নেটফ্লিক্স অ্যাপটি ডাওনলোড করে নিতে পারবেন । যদিও অনেক ল্যাপটপে এবং পিসিতে বিল্টইন ভাবেই আসে । এর ফলে আপনি চাইলে যেকোন কনটেন্ট অফলাইন এ রাখতে পারবেন ।

 

মানে আপনার কোন পছন্দের সিরিজ বা সিনেমা আপনি পরে কোন সময়ে দেখতে চাইলে তা ডাওনলোড করে রাখতে পারবেন । তবে এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে যে আপনি একটি টিভি সিরিজ চাইলেই একসাথে পুরো সিজন অফলাইনে দেখার জন্য ডাওনলোড করতে পারবেন না । একটি এপিসোড অফলাইন হওয়ার পরে অন্য আরেকটি এপিসোড অফলাইন করতে পারবেন ।

 

অ্যাপল এর তৈরি প্রায় সকল পণ্যে এবং গুগল এর অ্যান্ডোরিড ডিভাইসে চলবে নেটফ্লিক্স। অ্যামাজন এর তৈরি ফায়ার ডিভাইস এর পাশাপাশি রকু স্ট্রিমিং ডিভাইসেও সাপোর্ট করবে । এছাড়াও পুরনো স্মার্ট টিভি এবং গেমিং কনসোল প্লে স্টেশন এবং এক্সবক্স এ চলবে নেটফ্লিক্স ।

 

নেটফ্লিক্সের গ্রাহক সংখ্যা ও নিয়মিত ব্যাবহারকারী

নেটফ্লিক্সের গ্রাহক সংখ্যা প্রায় ১৫কোটি ও বেশি বা ১৫০+ মিলিয়ন রেজিস্টার্ড ইউজার ছাড়িয়েছে । এমনটাই বলা হয়েছে একটি রিপোর্ট এ । এর মধ্যে শুধুমাত্র যুক্তরাষ্ট্রতে রয়েছে প্রায় ৫৮+ মিলিয়ন গ্রাহক ।

 
 

নেটফ্লিক্সের সমালোচনা

নেটফ্লিক্স তাদের স্ট্রিমিং সার্ভিস চালুর পর থেকে সমালোচনার শিকার ছিল না । কিন্তু গত কয়েক বছরে এরা সমালোচনার শিকার হয় । বিশেষ করে প্রতিবছর তারা তাদের মাসিক চার্জ $১ ডলার করে বাড়ানোয় । তবে অনেক গ্রাহকের মতে তাদের জোশ অরিজিনাল কন্টেন্ট তৈরির জন্য মাসিক চার্জ $১ ডলার করে বাড়াতে পারেই । কিন্তু গত বছর তারা একসাথে প্রায় $২ ডলার বাড়িয়ে ফেলে । এতে করে তারা সকল দর্শকমহল থেকে সমালোচনার মুখে পড়ে । বিশেষ করে তারা বিভিন্ন জনপ্রিয় মুভি এবং সিরিজ হারাচ্ছিল আবার তাদের মাসিক চার্জও বাড়ায় ।

 

এই ফিচারের মাধ্যমে ব্যাবহারকারি যেখান থেকে একটি মুভি কিংবা সিরিজ বন্ধ করেছিল, পরবর্তীকালে সেখান থেকে পুনরায় দেখতে পারবে । কিন্তু ডিজনি প্লাস লঞ্চের সময় এই ফিচার না থাকায় ব্যাবহারকারিদের কে সেই মুভি বা সিরিজকে নতুন দেখতে হচ্ছিল । যদিও এই ফিচার পরবর্তীতে আপডেট এর মাধ্যমে যোগ করে দেওয়া হয় ।

 

আরো তথ্য যোগ করে পোস্টটি নিয়মিত আপডেট করা হবে তাই আমাদের সাথেই থাকুন ।

Disclosure: This post May contains affiliate links that support our Blog. When you purchase something after clicking an affiliate link, we may receive a commission. Also Note That We Are Not Responsible For Any Third-party Websites Link Contents
MD: Ashikur Rahman

আমি একজন মুভি ও সিরিজ লাভার। সুপারহিরো জেনরে আমি মার্ভেল ও ডিসি সকলের তৈরী সিনেমাই পছন্দ করি দেখতে। আমার ব্লগ সাইটঃ www.Tvhex.Com চাইলে আমাকে ফেসবুক ও টুইটারে ফলো করতে পারেন। facebook twitter

Post a Comment

আপনাদের কোন কিছু জানার থাকলে আমাদের কে কমেন্ট করে জানাতে পারেন ।



if you have something to say, “Please Comment your Opinion ” Thank You.

Previous Post Next Post