নেটফ্লিক্স স্ট্রিমিং সার্ভিস রিভিউ

netflix logo - নেটফ্লিক্স স্ট্রিমিং সার্ভিস রিভিউ

নেটফ্লিক্স হলো অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং সার্ভিসের একক রাজা । ২০১০ সালে Netflix নিজেদের ভিডিও স্ট্রিমিং সার্ভিস চালু করার পরে থেকে, দ্রুত জনপ্রিয় হতে থাকে তরুণ সমাজের মধ্যে ।

যার ফলাফল আজকে পুরো বিশ্বের ১৯০+ টি দেশের ১৫০+মিলিয়ন গ্রাহক নিয়ে বিশ্বের শীর্ষতম VOD (ভিডিও অন ডিমান্ড) এবং OTT (ওভার দ্যা টপ) সার্ভিসে পরিণত হয়েছে ।

{tocify} $title={Table of Contents}

Netflix Online Streaming Service Review

netflix-original-content-logo-reviewhax.blogspot.com
( Copyright Courtesy: Netflix/internet )

নেটফ্লিক্সে আপনি মাসিক চার্জ দিয়ে দেখতে পাবেন হাজার হাজার সিনেমা ও টিভি সিরিজ । তবে এখানে দেশ অনুযায়ী লাইসেন্স থাকায় কিছুটা সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় । যেমম আপনি যুক্তরাষ্ট্র কোন সিনেমা দেখতে পারলেও সেটি ভারতে দেখতে পারবেন না । অন্যদিকে Netflix Originals এর সকল কন্টেন্ট পুরো বিশ্বেই একযোগে দেখা যায় ।

 

নেটফ্লিক্স কি? নেটফ্লিক্সের বিস্তারিত

নেটফ্লিক্স প্রায় ২২ বছর পুরনো কোম্পানি। আজকের নেটফ্লিক্স কিন্তু আগে এই রকম ছিল না । Reed Hastings এবং Marc Randolph তারা ১৯৯৭ সালে নেটফ্লিক্স কে প্রতিষ্ঠান করেছিল ডিভিডি রেন্টাল সার্ভিস হিসেবে । মানে তারা আগে মাসিক সাবস্ক্রিপশনের মাধ্যমে গ্রাহকদের নিকট ডিভিডি (DVD) এর মাধ্যমে বিভিন্ন সিনেমা পৌঁছে দিত । পরবর্তীকালে ২০১০ সালের দিকে তারা এই সেবা ছেড়ে দেয় ।

 

এই সেবার বদলে তারা গ্রাহকদের নিকট অনলাইনে মাসিক চার্জ রেখে বিভিন্ন সিনেমা এবং টিভি সিরিজ বিক্রি করত । প্রথম দিকে নেটফ্লিক্স বিভিন্ন কোম্পানির নিকট হতে কন্টেন্ট লাইসেন্স নিয়ে বিক্রি করত । পরবর্তীতে ২০১২ সালে নেটফ্লিক্স নিজে থেকেই কন্টেন্ট বানানোয় মনোযোগ দেয় ।

এর মাধ্যমেই ধীরে ধীরে পরিণত এবং বাড়তে থাকে নেটফ্লিক্সের অরিজিনাল কন্টেন্ট এবং আমরা পাই আজকের বিশাল অরিজিনাল কন্টেন্ট সমৃদ্ধ নেটফ্লিক্স । তবে মজার ব্যাপার হলো আপনি চাইলে এখনো রেন্টালের মাধ্যমে বিভিন্ন সিনেমা এবং সিরিজ দেখতে পারবেন । যেটা ডিভিডি কিংবা ব্লুরে ডিস্কের মাধ্যমে প্রদান করা হয় ।

 

নেটফ্লিক্সের প্রতিদ্বন্দ্বী স্ট্রিমিং সার্ভিস সমুহ

২০১৬ সালে নেটফ্লিক্স বিশ্বের ১৯০টি দেশে নিজেদের সেবা চালু করে । এর মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চালু থাকা একাধিক স্ট্রিমিং সার্ভিসের সাথে প্রতিযোগিতা শুরু করে । অন্যদিকে নেটফ্লিক্স এর আধিপত্য হটাতে ২০১৭ সালে ডিজনি তাদের নিজস্ব স্ট্রিমিং সার্ভিসের ঘোষণা দেয় । যেটি বর্তমানে ডিজনি প্লাস নামে পরিচিত । Disney Plus নিজেদের সেবা চালুর দুইমাসের মধ্যেই নেটফ্লিক্সের শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠেছে ।

 

ডিজনি এর পাশাপাশি Warner Media Company এর অঙ্গপ্রতিষ্ঠান ডিসি এন্টারটেইনমেন্ট তাদের সুপারহিরো ভিত্তিক অ্যাপ DC Universe Streaming Service নিয়ে আসে । যার ফলে নেটফ্লিক্স ধীরেধীরে ডিসির প্রায় সকল লাইভ অ্যাকশন সিনেমা ও অ্যানিমেশন মুভি সিরিজ হারাচ্ছে । শুধু তাই নয় দ্যা অফিস কিংবা সাউথ পার্ক এর মত জনপ্রিয় সিরিজ বানানো প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান nbcuniversal তাদের নিজস্ব স্ট্রিমিং সার্ভিস Peacock নিয়ে আসছে ।

 

যার ফলে স্ট্রিমিং বাজারে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে । তবে এই লড়াই পুরোপুরিভাবে জমবে না । যতক্ষণ পর্যন্ত না Warner Media Company তাদের HBO ব্রান্ডে তাদের স্ট্রিমিং সার্ভিস HBO MAX না নিয়ে আসে ।

অন্যদিকে আইফোন নির্মাতা অ্যাপল ইনকর্পোরেশন তাদের নিজস্ব স্ট্রিমিং সেবা অ্যাপল টিভি প্লাস নিয়ে এসেছে । যেটা কিনা অন্যান্য স্ট্রিমিং সার্ভিস থেকে সাশ্রয়ী মাসিক চার্জ মাত্র $৪.৯৯ ডলার । অন্যদিকে নেটফ্লিক্সের মাসিক চার্জ সর্বনিম্ন $৯ ডলার, ডিসি ইউনিভার্স $৭ ডলার, ডিজনি প্লাস $৬ ডলার, HBO MAX $১৫ ডলার , PEACOCK $৫ এবং $১০ ডলার।

Netflix Original Content List

নেটফ্লিক্স ২০১২ সালে নিজেদের তৈরি প্রথম সিরিজ প্রকাশ করে যার নাম Lilyhammer । তখন থেকেই নেটফ্লিক্স নিজেরাই সিনেমা এবং টিভি সিরিজ তৈরিতে মনোযোগ দেয় । তারা নিজেদের তৈরি কন্টেন্ট কে Netflix Original হিসেবে ব্রান্ডিং করে থাকে ।

২০১৩ সালে তারা “হাউজ অফ কার্ডস” নামক সিরিজ বানিয়ে প্রচুর প্রশংসা কুড়ায় । এর পর থেকে তারা তাদের অরিজিনাল কন্টেন্ট তৈরিতে মনোযোগ দেয় । এর ফলে আমরা একের পর এক অসাধারণ সিরিজ পাই । যেমন: স্ট্রেনজার থিংস কিংবা ডার্ক সিরিজ ইত্যাদি ।

 

নিচে নেটফ্লিক্সের অরিজিনাল মুভি সিনেমা এবং সিরিজের বিস্তারিত তালিকা দেওয়া হলো ।

 

Stranger Things: ২০১৬ সালে প্রচারিত হয় নেটফ্লিক্সের সবচয়ে জনপ্রিয় সিরিজ স্ট্রেঞ্জার্স থিংস । যেটা মুক্তির পরে সবচেয়ে বেশি দেখা সিরিজগুলির একটি হয়েছিল । এরই রেশ ধরে গত বছর মুক্তি পেয়েছে Stranger Things Season 3 । ইতোমধ্যে সিজন ৪ এর ডেট অ্যানাউন্সমেন্ট হয়ে গেছে । খুব তাড়াতাড়ি স্ট্রেঞ্জার্স থিংস সিজন ৪ পেয়ে যাবো আমরা ।

 

13 Reasons Why: ২০১৬ সালে প্রচারিত হয় নেটফ্লিক্সের আরেকটি জনপ্রিয় সিরিজ 13 Reasons Why । যেটা মুক্তির পরে সবচেয়ে বেশি সমালোচিত সিরিজগুলির একটি হয়েছিল । যা এখনো সমালোচনায় রয়েছে । গেল বছর প্রকাশিত হয়েছে 13 Reasons Why এর সিজন ৩ বিস্তারিত এখান থেকে পড়ে নিন

 

Dark (2017): ২০১৭ সালে প্রচারিত হয় নেটফ্লিক্সের সবচয়ে জনপ্রিয় সিরিজ ডার্ক । যেটা মুক্তির পরে সবচেয়ে বেশি দেখা সিরিজগুলির একটি হয়েছিল । শুধু তাই নয় জার্মানভাষী এই সিরিজ জিতে নিয়েছিল একাধিক নমিনেশন ।

এরই রেশ ধরে গত বছর মুক্তি পেয়েছে Dark Season 2 । মুক্তির পরেই সকল মুভি ও সিরিজ লাভারদের নিকট আলোচনার পাত্র হয়ে উঠে এই সিরিজটি । ইতোমধ্যে Dark সিজন ৩ এর ডেট অ্যানাউন্সমেন্ট হয়ে গেছে । খুব তাড়াতাড়ি ডার্ক সিজন ৩ পেয়ে যাবো আমরা ।

The Witcher: কি ভাবছেন একটি ভিডিও গেমের কথা এখানে টেনে আনছি কেন? তাহলে বোধহয় আপনি দ্যা উইচার উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি, ২০১৯ সালে প্রচারিত হয় আরেকটি জনপ্রিয় সিরিজ THE WITCHER । যেটা মুক্তির পরে সবচেয়ে বেশি আলোচিত-সমালোচিত সিরিজগুলির একটি হয়েছিল ।

বিশেষ করে এই সিরিজকে গেম অফ থ্রোন্স এর সাথে তুলনা করায় । যা এখনো অনলাইন এ শোরগোল রয়েছে । তবে অনেক সিনেমা বোদ্ধা একে নেটফ্লিক্সের গেম অফ থ্রোন্স বলে অভিহিত করে থাকে । গত ডিসেম্বরে প্রকাশিত হয়েছে দ্যা উইচার সিরিজটি

 

Ozark: কখনো কি আপনি ভেবেছেন মেক্সিকান কার্টেলদের হয়ে যারা কাজ করেছে কিংবা তাদের কে ধোকা দিলে কি পরিণীত হয় তা জানেন? না জেনে থাকলে ওযারক সিরিজটি আপনার জন্য মাস্ট ওয়াচ । এতে শুধু কার্টেলদের কেই নয়, সেই সাথে একটি পরিবারের সার্ভাইভ করে বেচে থেকা নিয়ে এই সিরিজ । বর্তমানে দুই সিজন বের হয়েছে যা নেটফ্লিক্সে দেখা যাচ্ছে । খুব তাড়াতাড়ি Ozark Season 3 প্রকাশিত হবে ।

 

The Haunting of Hill House: দ্যা হান্টিং অফ হিল হাউস সিরিজটি ২০১৮ সালে হ্যালুউইন এ প্রচারিত হয়েছে । এই সিরিজটি তৈরি করা হয়েছে একই নামের উপন্যাস থেকে । যেখানে দেখা যায়, “হিল হাউস নামের বাড়িতে একটি পরিবারের সদস্যদের বেড়ে উঠার গল্প । যেটার সাথে তাদের অতীত, বর্তমান এবং ভবিষ্যৎ জড়িয়ে এবং মিলে রয়েছে । নেটফ্লিক্সের হরর সিরিজের মধ্যে বলা চলে Haunting of Hill House জনপ্রিয়ের শীর্ষে । খুব তাড়াতাড়ি এর দ্বিতীয় সিজন প্রকাশিত হবে ।

 

Chilling Adventures of Sabrina: নেটফ্লিক্সের আরেকটি জনপ্রিয় সিরিজ চিলিং আডভেঞ্চার্স অফ সাবরিনা সিরিজ হলো অন্য আরেকটি জনপ্রিয় সিরিজ RiverDale এর স্পিন অফ সিরিজ । প্রথমে সিরিজের নাম Greendale রাখা হয়েছিল কিন্তু প্রোডাকশন জটিলতায় কারনে সেই নাম পরিবর্তন করে Chilling Adventures of Sabrina রাখা হয় । এখানে Sabrina Spellman নামক এক অর্ধেক মানুষ অর্ধেক শয়তান মেয়ের জীবনী নিয়ে । বর্তমানে এর দ্বিতীয় সিজন প্রচার হচ্ছে । খুব তাড়াতাড়ি Chilling Adventures of Sabrina Part 3 Trailer প্রকাশিত হবে ।

 

নেটফ্লিক্সের মাসিক প্যাকেজ এবং সাবস্ক্রিপশন চার্জ

নেটফ্লিক্স বর্তমানে তিনটি ভিন্ন প্যাকেজ প্লান চালু রেখেছে । Basic, Standard এবং Premium । যা যথাক্রমে ১০,১২ এবং ১৬ ডলার চার্জ করে ।

 
 

যেভাবে বাংলাদেশ থেকে নেটফ্লিক্স ব্যাবহার করতে হয়

যদিও বাংলাদেশে অফিশিয়ালি নেটফ্লিক্স চালু নয় । তবে আশা করা যায় খুব তাড়াতাড়ি তারা বাংলাদেশে এই সার্ভিস চালু করবে । এখন আপনারা অনেকেই বলবেন যে বাংলাদেশে তো নেটফ্লিক্স দেখা যায় তাহলে চালু হলো না কিভাবে? ।

এর উত্তর হচ্ছে আপনি যখন নেটফ্লিক্সে পেমেন্ট করেন তখন কিন্তু আপনি ইউএস ডলার মানে বিদেশি অর্থ এবং ইউএস এর সমমান মাসিক বিল দেন । কিন্তু যখন নেটফ্লিক্স অফিশিয়ালি বাংলাদেশে চালু হবে তখন আপনি নেটফ্লিক্সের মাসিক বিল বাংলাদেশি টাকায় দিতে পারবেন । এটাই হলো অফিশিয়ালি চালু হওয়ার প্রক্রিয়ার মধ্যে একটি ।

 

যেভাবে বাংলাদেশে বসে নেটফ্লিক্স অ্যাকাউন্ট তৈরি করবেন

বাংলাদেশ এবং অন্যান্য দেশ থেকে নেটফ্লিক্স অ্যাকাউন্ট তৈরি করা খুবই সহজ এবং অভিন্ন। প্রথমেই আপনাকে netflix.com এ যেতে হবে । কিংবা গুগল প্লে স্টোর বা অ্যাপল অ্যাপ স্টোর থেকে Netflix App ডাওনলোড করতে হবে । এর পরে sign up এ ক্লিক করতে হবে । এখন একটি ফ্রম আসবে । সেখানে আপনার প্রয়োজনীয় তথ্য যেমন: মোবাইল নম্বর, ইমেইল অ্যাড্রেস, ঠিকানা, ক্রেডিট/ডেবিট কার্ডের তথ্য, পাসওয়ার্ড ইত্যাদি দিয়ে ফ্রমটি পুরন করে নিচে থাকা টিক বক্সে ক্লিক দিতে হবে ।

 

এর পরে সাইন আপ বাটনে ক্লিক করতে হবে । আপনার মোবাইল নম্বর এবং ইমেইল অ্যাড্রেস ভেরিফাই এর জন্য, মোবাইলে একটি পিন কোড এবং ইমেইলে ভেরিফাই লিংক আসবে । ইমেইলের ভেরিফাই লিংক করে ইমেইল ভেরিফাইড করে নিতে হবে, সেই সাথে মোবাইলে আসা পিন কোড আপনার অ্যাকাউন্ট এ গিয়ে যথাস্থানে আপনার পিন কোড বসিয়ে মোবাইল নম্বর ভেরিফাইড করতে হবে । এর ফলে আপনার নেটফ্লিক্সের অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়ে যাবে ।

 

নেটফ্লিক্সের অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়ে গেলেই কিন্তু ব্যাবহার করতে পারবেন না । এর জন্য আপনাকে একটি প্লান বেছে নিতে হবে । যেমন: আপনি কোন প্যাকেজ নিতে চাচ্ছেন কতদিনের জন্য ইত্যাদি । যদিও আপনি প্রথম একমাস বিনামূল্যে নেটফ্লিক্স সেবাটি ব্যাবহার করতে পারবেন এর পরে আপনাকে যেকোন একটি প্যাকেজ কিনতে হবে । বিস্তারিত জানতে উপরে আমাদের নেটফ্লিক্স প্যাকেজ সমুহ অংশটি পড়ুন ।

 

নেটফ্লিক্স যে দেশে চালু রয়েছে

২০১৫ সাল নাগাদ নেটফ্লিক্স শুধুমাত্র কয়েকটি দেশে চালু ছিল । কিন্তু নিজ দেশে প্রতিযোগিতা বেড়ে যাওয়ায় নেটফ্লিক্স অন্যান্য দেশেও নিজেদের সেবা চালুর উদ্দেগ নেয় । ২০১৬ সালে দুইবছরের মধ্যে নেটফ্লিক্স বিশ্বের ১৯০টি দেশে নিজেদের সেবা চালু করার পরিকল্পনা করে। যার ফলে প্রায় পুরো বিশ্বেই নেটফ্লিক্সের অনলাইন ভিডিও স্ট্রিমিং সেবা চালু হয় ।

 

নেটফ্লিক্স যেদেশে বন্ধ বা নিষিদ্ধ

এশিয়ার কয়েকটি দেশে নেটফ্লিক্স এর সেবা বন্ধ বা নিষিদ্ধ । এর মধ্যে চীন অন্যতম বড় দেশ । চীনে লোকাল অ্যাপ ব্যতীত অন্য দেশের কোন স্ট্রিমিং অ্যাপ ব্যাবহার করা মুশকিল । অন্যদিকে মার্কিন সরকারের নির্দেশে ফলে মধ্যপ্রাচ্যের Syria এবং North Korea তে আপাতত বন্ধ আছে এর সেবা । অন্যদিকে কিছুদিন আগেই Crimea নামক দেশে এর সেবা বন্ধ করে দেওয়া হয় আমেরিকান সরকারের জোরাজুরিতে ।

 

Netflix প্রোফাইল ব্যাবহার

নেটফ্লিক্সের সার্ভিসে আপনি একটি একাউন্ট দিয়ে পুরো পরিবার ব্যাবহার করতে পারবেন । কারন এখানে, একটি একাউন্ট এর মাধ্যমে একাধিক প্রোফাইল তৈরি করা যাবে । শুধু তাই নয় ভিন্ন ভিন্ন ডিভাইসের মাধ্যমে ৪ জন একসাথে এক সময়ে Netflix এ স্ট্রিম করতে পারবে । তবে এর জন্য নেটফ্লিক্স ফ্যামিলি কিংবা Premium প্লান লাগে । যার ফলে একটি একাউন্ট এর মাধ্যমেই পুরো পরিবার কভারেজ করতে পারবেন ।

 

অন্যদিকে প্রিমিয়াম প্লানে একসাথে চারটি ডিভাইসে সকল কন্টেন্ট স্ট্রিম করা যাবে । এর ফলে আপনি যখন Lost in Space Season 2 সিরিজটি দেখবেন, তখন আপনার পরিবারের অন্য কেউ 13 Reasons Why এর Season 3 দেখতে পারবে ।

 

নেটফ্লিক্স যেভাবে দেখতে পারবেন

আপনি আপনার কম্পিউটার এ ওয়েব ব্রাউজার এ নেটফ্লিক্স ব্যাবহার করতে পারবেন । সেই সাথে আপনি যদি উইন্ডোজ ১০ এর ব্যাবহারকারি হন তাহলে মাইক্রোসফট এর উইন্ডোজ স্টোরে নেটফ্লিক্স অ্যাপটি ডাওনলোড করে নিতে পারবেন । যদিও অনেক ল্যাপটপে এবং পিসিতে বিল্টইন ভাবেই আসে । এর ফলে আপনি চাইলে যেকোন কনটেন্ট অফলাইন এ রাখতে পারবেন ।

 

মানে আপনার কোন পছন্দের সিরিজ বা সিনেমা আপনি পরে কোন সময়ে দেখতে চাইলে তা ডাওনলোড করে রাখতে পারবেন । তবে এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে যে আপনি একটি টিভি সিরিজ চাইলেই একসাথে পুরো সিজন অফলাইনে দেখার জন্য ডাওনলোড করতে পারবেন না । একটি এপিসোড অফলাইন হওয়ার পরে অন্য আরেকটি এপিসোড অফলাইন করতে পারবেন ।

 

অ্যাপল এর তৈরি প্রায় সকল পণ্যে এবং গুগল এর অ্যান্ডোরিড ডিভাইসে চলবে নেটফ্লিক্স। অ্যামাজন এর তৈরি ফায়ার ডিভাইস এর পাশাপাশি রকু স্ট্রিমিং ডিভাইসেও সাপোর্ট করবে । এছাড়াও পুরনো স্মার্ট টিভি এবং গেমিং কনসোল প্লে স্টেশন এবং এক্সবক্স এ চলবে নেটফ্লিক্স ।

 

নেটফ্লিক্সের গ্রাহক সংখ্যা ও নিয়মিত ব্যাবহারকারী

নেটফ্লিক্সের গ্রাহক সংখ্যা প্রায় ১৫কোটি ও বেশি বা ১৫০+ মিলিয়ন রেজিস্টার্ড ইউজার ছাড়িয়েছে । এমনটাই বলা হয়েছে একটি রিপোর্ট এ । এর মধ্যে শুধুমাত্র যুক্তরাষ্ট্রতে রয়েছে প্রায় ৫৮+ মিলিয়ন গ্রাহক ।

 
 

নেটফ্লিক্সের সমালোচনা

নেটফ্লিক্স তাদের স্ট্রিমিং সার্ভিস চালুর পর থেকে সমালোচনার শিকার ছিল না । কিন্তু গত কয়েক বছরে এরা সমালোচনার শিকার হয় । বিশেষ করে প্রতিবছর তারা তাদের মাসিক চার্জ $১ ডলার করে বাড়ানোয় । তবে অনেক গ্রাহকের মতে তাদের জোশ অরিজিনাল কন্টেন্ট তৈরির জন্য মাসিক চার্জ $১ ডলার করে বাড়াতে পারেই । কিন্তু গত বছর তারা একসাথে প্রায় $২ ডলার বাড়িয়ে ফেলে । এতে করে তারা সকল দর্শকমহল থেকে সমালোচনার মুখে পড়ে । বিশেষ করে তারা বিভিন্ন জনপ্রিয় মুভি এবং সিরিজ হারাচ্ছিল আবার তাদের মাসিক চার্জও বাড়ায় ।

Netflix premium account, Netflix pro mod apk download, ফ্রি নেটফ্লিক্সের প্রিমিয়াম একাউন্ট, নেটফ্লিক্সের মুভি ডাওনলোড লিংক, নেটফ্লিক্সের সিরিজ লিংক, টিভিহেক্স, tvhex

এই ফিচারের মাধ্যমে ব্যাবহারকারি যেখান থেকে একটি মুভি কিংবা সিরিজ বন্ধ করেছিল, পরবর্তীকালে সেখান থেকে পুনরায় দেখতে পারবে । কিন্তু ডিজনি প্লাস লঞ্চের সময় এই ফিচার না থাকায় ব্যাবহারকারিদের কে সেই মুভি বা সিরিজকে নতুন দেখতে হচ্ছিল । যদিও এই ফিচার পরবর্তীতে আপডেট এর মাধ্যমে যোগ করে দেওয়া হয় ।

Kaleidoscope Netflix Series Review Link

 

আরো তথ্য যোগ করে পোস্টটি নিয়মিত আপডেট করা হবে তাই আমাদের সাথেই থাকুন ।

Leave a Comment

Total Views: 470

Scroll to Top