স্ট্রেঞ্জার থিংস সিজন ৪ রিভিউ - Stranger Things Review In Bangla

Disclosure: This content is reader-supported, which means that if you click on some of our links. then we may earn a commission.

প্রথম তিনটা সিজন ওদের নিজেদের মধ্যে যথেষ্ট ভালো কিন্তু এই সিজন ৪ যে সবগুলার মধ্যে এতটা জটিল আর ভালো তা সিরিজের ৪র্থ কিস্তি না দেখলে বলে বোঝানো যাবে না।

Stranger Things Season 4 review in Bangla


বহুল প্রতীক্ষিত নেটফ্লিক্সের এই সিরিজের সিজন ৪ এর ভলিউম ১ রিলিজ হয়েছে গতকাল, তাই আর দেরি না করেই দেখে শেষ করে ফেললাম এই সিরিজের ৪র্থ কিস্তির ভলিউম ১

{tocify} $title={Table of Contents}
 
Personal rating: 9.5 /10 
স্ট্রেঞ্জার থিংস রিভিউ
(image credit: Netflix)

প্রথম ২ এপিসোড দেখে কিছুটা হতাশ ছিলাম এইটা ভেবে যে  বোধয় সিরিজের প্লট কোন রকমে চালানোর জন্য একটা জগাখিচুরি করে বানিয়েছে।  কিন্তু সিরিজ যতই এগোতে থাকে ততই জট পাকায় কাহিনী। অনেক প্রশ্ন থাকে ,  সেই প্রশ্ন আবার সমাধান হয় সেখানেও প্রশ্ন তৈরি হয়। সাসপেন্সের কোন কমতি পাবেন না। কিছু কিছু প্রেডিক্ট করা সিন গুলা ঘটেও ঘটবে না৷ যেটা আমার কাছে একপ্রকার বেদনাদায়ক :3 

এখন আসি কোয়ালিটিতে,  এই সিজনে কালার গ্রেডিং ,  ভিএফএক্স , সিজিআই এবং সবশেষ  প্লট !  শন লেভি আর ডাফার ব্রাদার্স কোন অংশেই আমাদের  হতাশ করে নি। বরং বাকি তিনটার থেকে   এই সিজনে উনারা সবকিছুই বেশি দিতে চেয়েছেন৷ এবং পেরেছেন ও৷  
এন্ডিং সিন,  ভলিউমের কথা শুনে আমি ভেবেছিলাম হয়ত এন্ডিং টা একটু সাসপেন্সে রাখার ট্রাই করবে। এক্সপেকটেশন যতটুকু ছিলো সে পরিমান সাসপেন্স রাখে নি৷ এক্সপেকটেশন থাকার মেইন রিজন হচ্ছে ভলিউম সিস্টেম টা, সচারাচর এরকম কেইসে এন্ডিং সিনটায় এমন একটা সিন রাখার চেষ্টা করে যে অডিয়েন্স যাতে পরবর্তী ভলিউম টা মিস করতে না চায়৷

সেদিক থেকে এই একটা বিষয়ে একটু কমতি রেখেছে। যদিও কমতি বললে ভুল হবে,  কারণ, যে জট টা খুললো লাস্টে এসে সেটার দিক থেকে বিবেচনা করলে এন্ডিং সিন নিয়ে কারো মাথা ব্যথা হবে না কারণ ওই টুইস্টটা আবিষ্কার করেই অডিয়েন্স তব্দা খেয়ে থাকবে এক রাত, যে "এইটা কি হইলো! মানে কিভাবে!🤯 " 

সবকিছুর সাথে সাথে ওই লাস্টের এই টুইস্ট দেখেই মূলত ৯.৫ রেটিং দেয়া। কারণ বিষয়টা পুরোপুরিভাবে আনএক্সপেক্টেড ছিলো। মানে এত গভীর আর এত জটিল! পুরোপুরি আনএক্সপেক্টেড। প্রতিটা স্টেপের সাথে কতটা রিলেটেড এই টুইস্ট, আমি হলফ করে বলতে পারি কেউ কখনো এইটা আশা করে নাই যে কাহিনী এরকম ও হইতে পারে। 

যাই হোক, পরিশেষে এইটাই বলবো , (সবাইকে যেটা বলি) কোন সিরিজের প্রথম দিক দেখেই পুরো সিরিজের কাহিনী জাজ করা উচিত না। যদিও এবার ভুল টা আমি নিজেই করেছি। এক্সপেকটেশনের জন্য :3।  বিল্ড করতে দেন কাহিনী। তারপর দেখেন কাহিনী কোথায় আগায়৷ স্ট্রেঞ্জার থিংস সিজন ৪ নিঃসন্দেহে দেখার মত একটা সিজন। 

যারা স্ট্রেঞ্জার থিংসের বাকি এপিসোড গুলো দেখেছেন তারা তো অবশ্যই দেখবেন। হয়ত দেখেও ফেলেছেন এতক্ষণে আমার মত। কিন্তু যারা দেখেন নি!  স্ট্রিমিং চ্যানেলে, ডাউনলোড সার্ভারে সামনে আসার পরও ইগ্নোর করে গেছেন৷ তাদের জন্য এইটা নিঃসন্দেহে একটা দেখার মত সিরিজ। এটলিস্ট এই সিজন টা দেখার জন্য হলেও দেখা উচিত।  আশা করি হতাশ হবেন না।  

গতকাল রিলিজ হওয়ায় কোন প্রকার স্পয়লার না দিয়েই কাইন্ডঅফ জগাখিচুরি রিভিউ লিখে উৎসাহ দিতে চেয়েছি। কারণ স্পয়লার দিয়ে ভুল করেও আমি কারো দেখার মুড নষ্ট করতে চাই না।অনেকে স্পয়লার এলার্ট দেখার পর ও কৌতুহল বশত ক্লিক করে পড়েই ফেলে। 

 অনেকের মধ্যে আমি একজন।  যদিও উচিত না তবে,  ওইযে কৌতুহল! 😐 যাইহোক, অনেক কিছু লিখে ফেলেছি। সবাই দেখে ফেলুক। অন্যদিন এই সিরিজ নিয়ে আরো বিস্তারিত আলোচনা করে লেখা যাবে।

উপরের সবটুকুই আমার মতামতের আমার দেখর আঙ্গিকের উপর ভিত্তি করে লিখা,  কেউ কেউ ব্যতিক্রম থাকতে পারে।  তাদের মতামত কে আমি সাধুবাদ জানাই। প্রায় অনেক দিন পর রিভিউ লিখছি, দয়াকরে ভুলত্রুটি ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন। 
ধন্যবাদ 💗
Stranger Things Review In Bangla

স্ট্রেঞ্জার থিংস সিজন ৪

ঃ কেমন ছিল তিন বছরের অপেক্ষা।

যদিও সিজন ৪ এর প্রথম পার্টে মাত্র ৭ টি পর্ব ছিল।

দ্বিতীয় পার্টে মাত্র দুইটা এপিসোড থাকবে যার রান টাইম প্রায় ২ ঘন্টার বেশি হবে বলে জানা গেছে।
Series : Stranger Things Season 4 (part 1)
Episodes : 7
Genre : Thriller /Sci-fi

**** No Spoiler *****

দেখে ফেললাম বহুল প্রতীক্ষিত Stranger Things এর সিজন ৪ ❤️

আর আমি এক কথায় বলবো অসাধারণ ছিল পুরো সিজন! জাস্ট ওয়াও লেভেলের 🔥
এক্সপেকটেশন এর চৌদ্দ গুষ্টি উদ্ধার করে দিয়েছে। দেখার পর মনে হলো এটা কি দেখলাম!! কি ছিলো এটা!!

সিনেমাটোগ্রাফি, দুর্দান্ত ভিএফএক্স,মাথা ধরানো বিজিএম,থ্রিলার,হরর,ফ্যান্টাসি, প্লট সব কিছু খাপে খাপ ছিল। প্রত্যেকটা ক্যারেক্টারে সমান গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে আর সবাই জানপ্রাণ দিয়ে অভিনয় করেছে। এতই জীবন্ত অভিনয় ছিল যে রীতিমতো কলিজা কাঁপিয়ে দিয়েছে।
প্রতি এপিসোডের রানটাইম ১ ঘন্টার একটু বেশি। আমি টেলিগ্রাম এপ দিয়ে দেখেছি।

এই সিজনে যে টুইস্ট আর জটলা পাকানো হয়েছে তা বাকি সিজনকে হার মানায়। আর এন্ডিং টাও খুব ভালো ছিল। এখন পার্ট ২ এর জন্যে অপেক্ষা করতে হচ্ছে।
প্রত্যেকটা এপিসোড টুইস্টে ভরপুর যে এক বসায় দেখে শেষ করতে হবে। উত্তেজনা এতই প্রবল যে কিছু লিখতে চাই না কারণ স্পয়লার হয়ে যাবে।

যারা আমার মতো অপেক্ষার তর সইছিলো না সিজন ফোর এর জন্যে, তারা খুব শিগগির দেখে ফেলেন।

কারণ এই সিজন আপনাকে মানসিক চাপে রাখবে, ভয় দেখাবে, প্যাচঁ খোলাবে আর কি কি হবে বাকিটা দেখে নিয়েন 🔥
সবার দেখা হয়ে গেলে এই সিজন নিয়ে বিস্তারিত লিখার ইচ্ছা আছে।

ডাফার ব্রাদার্স আর শন লেভি মিলে যে রান্নাটা করেছে আমাদের জন্যে, এই রান্নার স্বাদ মুখে লেগে আছে।

তাই আর দেরি না করে চেখে নিন সিজন ফোরের পার্ট ওয়ান 🔥

𝙎𝙖𝙢𝙚 𝙩𝙝𝙞𝙣𝙜 𝙒𝙞𝙩𝙝 𝘽𝙞𝙜𝙜𝙚𝙧 𝙚𝙭𝙥𝙚𝙧𝙞𝙚𝙣𝙘𝙚 𝙖𝙣𝙙 𝘽𝙚𝙩𝙩𝙚𝙧 𝙑𝙞𝙨𝙪𝙖𝙡𝙨🙂 [𝖲𝗍𝗋𝖺𝗇𝗀𝖾𝗋 𝖳𝗁𝗂𝗇𝗀𝗌 𝖲𝖾𝖺𝗌𝗈𝗇 4 𝖵𝗈𝗅.1 𝖺𝗇𝖽 𝖵𝗈𝗅.2] ®️ 𝖯.𝖱 : 8/10 🔰তো শেষ হয়ে গেলো স্ট্রেঞ্জার্স থিংকসের সিজন ৪। যদিও এইটা নিয়ে আমার যতটা আশা ছিলো ততটা ডেলিভার করে নাই তাও দেখে অনেক মজা পাইছি। কারণ আগের থেকেই এইটা পছন্দ আমার 😇। এই সিজনটা এইটার পূর্বের ৩ সিজন থেকে অনেক দিক দিয়ে ভালো ছিলো। বর্তমানে এই সিজন নিয়ে সবচেয়ে বড় কম্পলিমেন্ট আমি এইটাই দিতে পারি। এইটার জন্য কি পরিমাণ হাইপ ছিলো ভাই কালকে রাত্রে নেটফ্লিক্স পুরো ডাউন হইয়া গেছে তাদের সার্ভারে অতিরিক্ত লোডের কারণে 😄।

🔰𝙋𝙤𝙨𝙞𝙩𝙞𝙫𝙚: যদি সিরিজের পজেটিভ দিকের কথা বলি তাহলে সবার প্রথমেই আসবে এইটার ভিজ্যুয়াল নিয়ে এক কথায় চমৎকার এক্সপেরিয়েন্স ছিলো। আগের সিজন গুলার তুলনায় এই সিজনে প্রচুর পরিমাণে ভিএফএক্স ব্যবহার করা হইছে আর প্রতিটা সিন যেখানে ভিএফএক্স ব্যবহার করা হইছে তা দেখলেই আপনি বুঝতে পারবেন কিন্তু জানার পরও এইটা আপনার কাছে অনেক ভালো লাগবে। তারপর এই সিরিজের কাস্টদের পারফরম্যান্স দেখার মতো। প্রতি বারের মতো এইবারও মিলি ববি ব্রাউন তার সেরাটা ডেলিভার করছে আর তাকে ছাড়া এক্টিং এর দিক দিয়ে বাকিদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভালো লাগছে স্যাডি সিঙ্ক তার পারফরম্যান্স মানে যে মেক্স এর রোল টা প্লে করছে।

আর বাকি সবার পারফরম্যান্সও অনেক ভালো ছিলো। সিরিজের বেকগ্রাউন্ড স্কোর টপ ক্লাস😇। তারা প্রতিটা সিচুয়েশন অনুযায়ী যেই গানগুলো ব্যবহার করছে তা অনেক ভালো ছিলো আমার কাছে ভালো লাগছে। আরেকটা জিনিস আমার ভালো লাগছে যে এই সিজনে বাকি সিজনের তুলানায় এইটার যেই সিরিয়েসনেস আর ডার্কনেস টা আছে সেইটা শেষ পর্যন্ত ধরে রাখে যার কারণে পূর্বের থেকে একটু বেটার ফিল দেয় এই সিজন। আর ভাই স্টিভের ক্যারেক্টার মারাত্মক ডেভোলাপ হইছে অনেক ভালো কইরা লেখা হইছে আর আমার পছন্দের ক্যারেক্টার হইয়া গেছে এইটা😍।

🔰𝙉𝙚𝙜𝙚𝙩𝙞𝙫𝙚: এইটার একটা জিনিস নিয়া আমার আগেও সমস্যা ছিলো আর এখনো এই সিজনেও সেই একই সমস্যা লাগছে সেইটা হইলো এই সিরিজের যে স্ট্রাকচারটা। মানে প্রতিটা সিজনে একই স্ট্রাকচার যে সবাই আলাদা আলাদা জায়গায় আছে এবং তখনই বিপদ আসে তারপর তারা গ্রুপে ভাগ হইবো আর শেষ পর্যন্ত সবার এক হইয়া তারপর শেষ।

এই একই জিনিস এক কি দুইবার দেখতে ভালো লাগে কিন্তু বারবার একই জিনিস যা আমার এই সিজনে একটু বেশিই চোখে পরছে যার কারণে স্টোরি অনেক দিক দিয়া প্রেডিক্টেবল হইয়া যায়। তাছাড়া কয়েকটা যায়গায় ক্যারেক্টার গুলার কথাবার্তার অনেক লম্বা টেক নিছে যার কারণে অনেকটা স্লো হইয়া যায় আর অনেক লম্বা লাগে এইটার রানটাইম।

🔰 সময় নষ্ট হবে না এইটা আমি সিউর দিয়ে বলতে পারি । অনেক ভালো একটা এক্সপেরিয়েন্স হবে আপনার জন্য। আর যাই হোক এইটার ক্যারেক্টার গুলোকে ভুলতে পারবেন না। একটার থেকে একটা নমুনা পুরা 😄। আমার জন্য ডাস্টিন সেরা ক্যারেক্টার এই সিরিজের। না দেখে থাকলে দেখে নেন🙂।

🍏Stranger Things: Season four 🍏 🚨Alert: Heavy Spoilers Ahead. PR: 9/10 Master of Puppets.... এডি মানসন যখন ডাস্টিন কে নিয়ে আলাদা হয়ে গেল তখনো বুঝিনি আরেকটা মাস্টারপিস সিন দেখতে যাচ্ছি কিছুক্ষণ পরেই। এই সিজনে দুইটা সিন দুইজন কে তূলনামূলকভাবে জনপ্রিয়তার শীর্ষে নিয়ে গেছে।

একটা হল এই দৃশ্যটা যেখানে এডি আর ডাস্টিন একটা ট্রেইলার এর উপর উঠে 80's এর তুমুল জনপ্রিয় মেটালিকা'র এই গানটা গায়। গানের দুইটা লাইন... "Come crawling Faster Obey your Master..." সিনের সাথে গানের কতটা সুন্দর কম্বিনেশন হতে পারে তার চমৎকার উদাহরণ এই গান।

আরেকটা হল ম্যাক্সিন এর প্রিয় গান "Running up that hill (A deal with God)" by Kate Bush. ৩৭ বছর আগের এই গানটা এতই জনপ্রিয় হয়েছে যে প্রথমবারের মত ইউ এস বিলবোর্ডের টপ টেনে জায়গা করে নিয়েছে। 'Dear Billy' এপিসোডে ম্যাক্স যখন প্রায় মারা যাবে ধরেই নিয়েছিল সবাই তখন এই 'বেস্ট সিন অফ সিজন ফৌর' টা শুরু হয়। ভিক্টর ক্রিল এর সাথে দেখা করার পর, ন্যান্সি আর রবিন পছন্দের গানকে যেমনটা বলেছিল "a lifeline back to reality" ম্যাক্স এর বাস্তবে ফিরে আসার জন্য একটা দরজা ছিল এই গান।

এই সিরিজে যেমনটা দেখা যাচ্ছে প্রতি সিজনেই ডাফার ব্রাদারস মূল চরিত্রের বাইরে অন্য একটা জনপ্রিয় চরিত্রের মৃত্যু ঘটিয়েছে। সিজন দুইয়ে বব নিউবি সুপারহিরো, তিন এ অ্যালেক্সি, আর চার এ এডি। তবে এডির মৃত্যু টা সবচে বেশী কষ্ট দিয়েছে আগের গুলার তুলনায়। আর তাকে স্ট্র‍্যাঞ্জার থিংস এর সকল সিজনের সবচে জনপ্রিয় চরিত্রগুলোর একটা বানিয়ে দিয়েছে নিঃসন্দেহে। তবে এডির মৃত্যুটা অবশ্যম্ভাবী ছিল। কারন পুরো হকিন্সবাসীর কাছে সে তখনো ভিলেন। সে বেঁচে ফিরলেও হকিন্সবাসী তাকে সাদরে মেনে নিতনা অবশ্যই। বরং ডাস্টিন যেমন এডির চাচা মি. মানসন কে বলেছিল...

He fought and died to protect this town... This town that...hated him. He isn't just innocent.. He's a Hero. একটা আফসোসের বিষয় হল এডির সাথে কিন্তু ইলেভেন এর দেখা হয়নি কখনো!

নিঃসন্দেহে এই সিজনের মোস্ট ইনফ্লুয়েনশিয়াল দুইটা চরিত্র

ম্যাক্স দ্য জুমার এবং এডি দ্য ব্যানিশড

আর লিস্ট ইনফ্লুয়েনশিয়াল দুইটা চরিত্র ছিল মাইক এবং উইল। প্রথম দুই সিজনে এই দুইজনের যে বেবি ফেইস ছিল তখন এরা ছিল সুপার কিউট। তখন মূলত এলের বাইরে এই দুইজনকে ঘিরেই সিজন গুলা এগিয়েছে। পিউবার্টির পর এখন যদিও এরা আর আগের মত নাই তবে সামনের সিজন এ এই দুইজন আবারো লাইমলাইটে চলে আসতে পারে, অন্তত উইল তো আসবেই কারন ভেকনা/মাইন্ড ফ্লেয়ারের সাথে উইল এখনো কানেক্টেড। আর উইল মাইন্ড ফ্লেয়ারকে শুধু হকিন্সে থাকলেই ফিল করতে পারে।

ভেকনা কে প্রথমে ভেবেছিলাম মাইন্ড ফ্লেয়ারের কোন আর্মি হবে। কিন্তু ভেকনা যেহেতু সামনের সিজনে আবার আসবে এতে যেটা বুঝলাম,

হকিন্সের আপসাইড-ডাউন, যেটা অন্য একটা ডাইমেনশন বা ডার্ক ডাইমেনশন বলতে পারি, সেখানে ডার্ক পার্টিকেল আগে থেকেই ছিল। তার প্রয়োজন ছিল একটা Evil Host এর। যেটা হল ওয়ান/হেনরি ক্রিল। এই ডার্ক পার্টিকেল দিয়ে হেনরি ক্রিল তৈরি করেছে মাইন্ড ফ্লেয়ার। হেনরি ক্রিলের পছন্দের প্রাণী ছিল মাকড়সা। সম্ভবত এ কারনেই মাইন্ড ফ্লেয়ার দেখতে মাকড়সার মতো। এবং এটা দিয়েই হেনরি ভর করেছিল উইলের উপর এজন্য উইল যখন মাইন্ড ফ্লেয়ারকে একেছিল তখনও এটা দেখতে ছিল মাকড়সার মত। এটা ব্যবহার করেই হেনরি হয়ে উঠেছে ডার্ক ডাইমেনশনের মাস্টার। আর এই পার্টিকেল যাদের শরীরে ঢুকে এমনকি যেকোন প্রাণীর যেমন ডেমোগর্গন, তারা হয়ে যায় হেনরির স্লেইভ। হেনরি ইচ্ছামতো তাদের ব্যবহার করতে পারে। হেনরি/ভেকনার প্রয়োজন ছিল একটা গেইট খোলা যেটা ইলেভেন প্রথম সিজনে ডেমোগর্গন কে মারার পর খুলে যায়।

ভেকনা আসলে মারা যায়নি। তার ফিজিকাল ফর্ম টা ধ্বংস করা গেছে, সম্ভবত। সম্ভবত এই কারনে যে, ন্যান্সির মডিফাইড শটগানের গুলিতে ভেকনা যখন ভিক্টর ক্রিলের বাড়ির আপসাইড-ডাউন চিলেকোঠা থেকে নিচে পড়ে যায় সেখানে যেয়ে তাকে আর পাওয়া যায়নি। সে চলে গেছে তখন।

ভেকনা চেয়েছে হকিন্স কে আপসাইড ডাউনের সাথে মার্জ করে ফেলতে, যেটা ইতোমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে। এখন পুরো হকিন্স জুড়েই গেইট। এই ঘটনা ঘটাতে ভেকনার প্রয়োজন ছিল চারটা মৃত্যু যার শেষের টা ম্যাক্স হওয়ার কথা। চারটা মৃত্যুতে চারটা গেইট খুলবে তারপর হকিন্স আর আপসাইড ডাউনের মধ্যে কোন বাধা থাকবে না। কিন্তু ম্যাক্স দ্বিতীয়বারের মতো প্রায় মারা যাওয়ার মুহূর্তে ফিরে এসেছে। তাহলে গেইট খুলল কিভাবে?

লুকাস হসপিটালে ইলেভেন কে বলেছিল প্রায় এক মিনিটের মতো ম্যাক্স ক্লিনিক্যালি ডেড ছিল। এই এক মিনিটই যথেষ্ট ছিল চতুর্থ গেইটটা ওপেন হতে। তখনো ম্যাক্সের ব্রেইন ডেড হয়নি তাই ইলেভেন ম্যাক্সের মাইন্ডে ঢুকতে পেরেছিল। কিন্তু হসপিটালে আনার পর ইলেভেন আবারো ম্যাক্সের মাইন্ডে ঢুকেছিল কিন্তু কিছু পায়নি। কারন ম্যাক্স মারা না গেলেও সে তখন ভেকনার মাইন্ড প্রিজনে বন্দী হয়ে গেছে।

সিজন ফাইভে পুরোটাই ভেকনার সাথে যুদ্ধ নিয়ে হবে বলেই মনে হয়। কারন হকিন্স আর আপসাইড ডাউন মার্জ হতে শুরু করেছে। শুধু ভেকনা কে ধ্বংস করলেই হবেনা, গেইট পার্মানেন্টলি বন্ধ করতে হবে, ম্যাক্সকে মাইন্ড প্রিজন থেকে বের করতে হবে আগে, উইল কেও ভেকনার কানেকশন থেকে মুক্ত করতে হবে। ভেকনা আগেই মারা গেলে এদেরও মৃত্যু ঘটার সম্ভাবনা আছে যেহেতু এরা ভেকনার সাথে যুক্ত। আরেকটা বাধা আছে। হকিন্সবাসীর কাছে যেমন এডি ছিল সব সমস্যার মূল কারন, ইউএস গভর্নমেন্ট এর একটা অংশ সম্ভবত আর্মি, তাদের কাছেও ইলেভেন হল সেইম। সব সমস্যার মূল। তাই এদেরকেও মোকাবেলা করতে হবে।
Disclosure: This post May contains affiliate links that support our Blog. When you purchase something after clicking an affiliate link, we may receive a commission. Also Note That We Are Not Responsible For Any Third-party Websites Link Contents
MD: Ashikur Rahman

আমি একজন মুভি ও সিরিজ লাভার। সুপারহিরো জেনরে আমি মার্ভেল ও ডিসি সকলের তৈরী সিনেমাই পছন্দ করি দেখতে। আমার ব্লগ সাইটঃ www.Tvhex.Com চাইলে আমাকে ফেসবুক ও টুইটারে ফলো করতে পারেন। facebook twitter

Post a Comment

আপনাদের কোন কিছু জানার থাকলে আমাদের কে কমেন্ট করে জানাতে পারেন ।



if you have something to say, “Please Comment your Opinion ” Thank You.

Previous Post Next Post