Bloodshot Movie Review - ব্লডশট মুভি ট্রেলার রিভিউ

Disclosure: This content is reader-supported, which means that if you click on some of our links. then we may earn a commission.
এসে গেল ভিন ডিজেল অভিনীত সুপার হিরো সিনেমা ব্লডশট এর অফিশিয়াল ট্রেইলার । ডিসি সুপারহিরো Shazam কিংবা মার্ভেলের ব্লাক উইডো এর মতো ব্লডশট হলো ভালিয়ান্ট কমিক্সের সুপারহিরো
    Bloodshot Movie মুক্তি পাবে আগামী বছরের মার্চে ।

    Bloodshot Movie box office collection

    প্রজেক্ট ব্লাডশট, যা মানব জাতির উন্নতির শিখরে পৌঁছে যাওয়ার জীবন্ত এক প্রমাণ! ইতিহাসে প্রথম বারের মত কোন মৃত মানুষকে জীবন্ত ফিরিয়ে আনতে পেরেছিল RST নামক এক ল্যাব।
    Bloodshot-Movie-trailer-breakdown-review
    (Image Credit: Sony Pictures/Valiant Entertainment)
    Bloodshot হলো উলভারিন এবং পানিশারের সমন্বয়ে তৈরি এক অ্যান্টিহিরো । তার আসল নাম হলো রে গ্যারিসন সে একজন মেরিন অফিসার ছিল । কিন্তু এক দুর্ঘটনায় তার এবং তার স্ত্রীর মৃত্য হয় । এর পরে Project Rising Spirit বা PRS নামক এক সিক্রেট অর্গানাইজেশন তার শরিরে ন্যানাইট দিয়ে তাকে পুনরায় জীবিত করে । তার সুপারহিউম্যান শক্তি না থাকলেও, সে তার শরীরে থাকা ন্যানাইট দিয়ে বিশেষ ক্ষমতা লাভ করেছে । যেমন সে উলভারীনের মত অসাধারণ হিলিং শক্তি রয়েছে । অন্যদিকে কিছু সরকারী লোকেরা পানিশারের মতো তার স্ত্রী ও তাকে হত্যা করে ।

    ব্লডশট মুভি বক্স অফিস কালেকশন রিপোর্ট

    মুভিটি যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় প্রায় $২৫ মিলিয়ন ডলার ওপেনিং উইকেন্ডে আয় করবে বলে ধারণা করা হচ্ছিল । কিন্তু করোনাভাইরাস এর কারনে পুরো বিশ্বে সবমিলিয়ে মাত্র $31 Million Dollar বক্স অফিসে কালেক্ট করে । যার ফলে এটাকে ফ্লপ বলাই চলে । অন্যদিকে ফেব্রুয়ারিতে মুক্তি পাওয়া ডিজনি পিক্সার্স স্টুডিও এর ‘Onward’ মুভিটি বক্স অফিসে ফ্লপ হয়েছিল । যার ফলে করোনাভাইরাস এর কারনে একাধিক বড় বাজেটের সিনেমার রিলিজ ডেট পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে । যার মধ্যে ট্রেইন টু বুসান ২: Peninsula অন্যতম ।
    😍Note: ব্লডশট এর বিস্তারিত বক্স অফিস কালেকশন রিপোর্ট নিয়ে আমরা খুব তাড়াতাড়ি পোস্টি আপডেট করব । 😎

    Bloodshot Movie Details

    নো স্পইলার 😀
    ব্লডশট ভালিয়ান্ট কমিক্সের সিনেমাটিক ইউনিভার্সের প্রথম ইন্সটলমেন্ট সিনেমা । খুব তাড়াতাড়ি হারবিংগার নামের সিনেমাও আসছে । যার সাথে ব্লডশট মুভির কানেকশন থাকবে ।
    ২০১২ সালে ভালিয়ান্ট কমিক্স থেকে সনি স্টুডিও একাধিক ক্যারেক্টার কিনে নেয় । ২০১৫ সালে সনি আর ভালিয়ান্ট এন্টারটেইনমেন্ট তাদের ক্যারেক্টার দিয়ে পাঁচটি সিনেমা তৈরির ঘোষণা দেয় । এর পরে শুরু হয় ব্লডশট সিনেমার কাজ ।
    ২০১৭ সালের জুলাই মাসে জেরাড লেটো কে ব্লডশট চরিত্রে নেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয় । কিন্তু মার্চ ২০১৮ সালে জেরাড লেটোর জায়গায় ফাস্ট অ্যান্ড ফিউরিয়াস সিরিজের সুপারস্টার ভিন ডিজেল কে নেওয়া হয় । এর পরে এই সিনেমার শ্যুটিং শুরু হয় ।
    এরই ধারাবাহিকতায় গত ২১শে অক্টোবর ব্লডশট সিনেমার প্রথম টিজার ট্রেইলার প্রকাশিত হয় Sony Entertainment এর ইউটিউব চ্যানেল এ ।
    ব্লডশট সিনেমার ট্রেইলারে পুরো মুভির প্লট সম্পর্কে বলে দেওয়ায় অনেকেই এই সিনেমার সমালোচনা করেছে । বিশেষ অনেক সিনেমা বোদ্ধাদের মতে যেহেতু ট্রেইলারেই পুরো মুভিই দেখিয়েছে তাহলে হলে গিয়ে দেখার কি আছে ?

    সিনেমাহলে যেদিন মুক্তি পাচ্ছে ভিন ডিজেলের ব্লডশট সিনেমাটি

    ব্লডশট সিনেমা প্রথমে ২১ শে ফেব্রুয়ারি মুক্তির কথা থাকলেও সেটি পিছিয়ে মার্চের ১৩ তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

    এক নজরে ব্লডশট মুভি

    Movie Name: Bloodshot (2020)
    Release Date: March 13, 2020
    Language: English (একাধিক ভাষায় ডাবিং করা হয়েছে )
    Movie Budget: $45 million Dollar
    Box office: $29.2 million ( Box office Flop)
    Cast: Vin Diesel, Eiza González, Sam Heughan, Toby Kebbell, Guy Pearce
    Director: David S. F. Wilson
    Producer: Neal H. Moritz, Toby Jaffe, Dinesh Shamdasani এবং Vin Diesel
    Personal Rating: 2 / 5
    Reviewer: Ashikur Rahman
    Review Date: 29 March 2020
    Review Ratings: 2 / 5
    Rotten Tomato: Bloodshot (2020) on Rotten Tomatoes
    IMDB: Bloodshot on IMDb
    Movie Link: Bloodshot on IMDb
    WIKIPEDIA: Bloodshot in Wikipedia

    Bloodshot - ব্লডশট মুভি রিভিউ

    প্রজেক্ট ব্লাডশট, মানব জাতির বৈজ্ঞানিক উন্নতির শিখরে পৌঁছে যাওয়ার জীবন্ত এক প্রমাণ! এই প্রথম কাউকে মৃত থেকে ফিরিয়ে আনতে পেরেছে RST নামক এক ল্যাব।
    এই RST হল কিছু বিজ্ঞানী যাদের কে ‘ডক’ হিসেবে অবিহিত করা হয় ।আর হ্যা ডক দ্বারা পরিচালিত একটি গোপন ল্যাব যেখানে ইউ এস মিলিটারির গুরুত্বপূর্ণ সেনা সম্পদগুলোকে নতুন করে রিবিল্ড করা হয় কিংবা বলা যায় যেখানে সৈন্যদের এক্সোলিটাল রিকনস্ট্রাকশন করা হয়।
    প্রজেক্ট ব্লাডশট হল ডকের একটি মিলিয়ন ডলারের প্রটোটাইপ। এই ল্যাবের রিবিল্ড করা একজন হল KT, যে কিনা এক্স নেভি সাতারু । যার সিরিয়াতে একটি রেসকিউ মিশনে দেহের ট্রাকিরার ল্যারিঞ্জিয়াল ক্ষতিগ্রস্ত হয় । এখন এই সিক্রেট অর্গানাইজেশন এর রিসার্চ এর রিকনস্ট্রাকশনের ফলে ব্ল্যাভিকলের মাধ্যমে গলার নিচ দিয়ে শ্বাস নেয়।
    আরেকজন হল Tribbs, যে কিনা নিজ চোখের দৃষ্টিশক্তি হারানোর আগে, আর্মির একজন শ্রেষ্ট ও দক্ষ নিশানাবাজ ছিল । জ্বি হ্যা সে কিন্তু এখন এই ল্যাবের কল্যাণেই পুরোপুরি দেখতে পায় । তার বুকের মধ্যখানে বসানো ক্যামেরা দিয়ে, যা শরীরের অকুলার প্রস্হেটিকের মাধ্যমে সরাসরি তার অপটিক নার্ভে তথ্য পাঠায়। যার ফলে সে অন্য সাধারণ মানুষের মতই দেখতে পায় । যদিও তার ক্যামেরা চোখদুটি বুকের মধ্যে হওয়ায়, উপরের দৃশ্যপট দেখতে কিছুটা সমস্যা হয়।
    এদের মত আরেকজন আছে যে কিনা এক্স নেভি ছিল এনার নাম শিল জিমি ডালটন । যে কিনা আফগানিস্তানে একটি মিশনে গিয়ে তার পা জোড়া হারিয়ে ফেলে । কিন্তু এখন তার রক্ত মাংসের পায়ের জায়গায়, উন্নত দুইজোড়া রোবোটিক পা আছে । প্রজেক্ট ব্লাডশটের ভাষ্যমতে তাঁরা আঘাতপ্রাপ্ত যোদ্ধা কিন্তু ডক তা না বলে তাদেরকে আরো উন্নত ও বিবর্ধিত যোদ্ধা বলতেই বেশি পছন্দ করে।
    এখন ফিরছি Ray এর দিকে। এই Ray ই হল মৃত্যু পরবর্তি প্রজেক্ট ব্লাডশট। যার শরীরে রয়েছে বায়োমেকানিকাল তৈরি কারক ন্যানাইটস । যেগুলো সঞ্জানে জীবতত্ত্ব রক্ষা করে, দেহের ভয়ংকর ইনজুরিতে দ্রুত সাড়া দিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত টিস্যুকে নতুন করে তৈরি করে। অনেকটা ‘মার্ভেলের ডেডপুল’ চরিত্রে মত । যদিও রক্তের বদলে এই ন্যানাইটস গুলোই তার দেহে কাজ করে, সেইসাথে ন্যানাইটস এর এনার্জি সাপ্লাই দেওয়া হয় RTS ল্যাব থেকেই।
    Ray এর মৃত্যু কিভাবে হলো কিংবা প্রজেক্ট ব্লাডশটের অতীত কাহিনী জানতে হলে আমাদের একটু পিছনে যেতে হবে। তবে ভরসা রাখুন আমি কোন স্পয়লার দিচ্ছিনা। Ray এবং তার স্ত্রী Gine বন্দী হয় বা কিডন্যাপড হয় সাইকো মার্টিন এক্স নামক এক ব্যাক্তির হাতে । সে Ray এর কাছে জানতে চায় যে, তাদের দুজন কে বন্দী করার আগে Ray মমবাসা'তে যে মিশনে ছিল সেখানে থাকা জিম্মিদের তথ্য কে দিয়েছিল ।
    উত্তরে Ray জবাব দেয় সে জানেনা কারণ তারকাছে শুধু টার্গেটরই তথ্য আছে। এই উত্তরে মার্টিন এক্স, Ray এর চোখের সামনে তার স্ত্রী কে খুন করে! ভয়ংকর ক্রোধ এবং প্রতিশোধস্পৃহা নিয়ে Ray নিজেও মার্টিন এর গুলিতে মারা যায়।
    RTS এর ল্যাবে Ray কে যখন জীবিত করে আবার নতুন রুপে ফিরিয়ে নিয়ে আসে, তখন তার কোন স্মৃতি মনে থাকেনা। ডক এবং ল্যাবের কেউ তার ব্যাকগ্রাউন্ড বলতে পারেনা কারণ Ray এর মত সৈন্যদের পরিচয় ও কাজের ধারা খুবই গোপন হতো । কিন্তু হঠাৎ করে Ray এর মনে তাকে হত্যা করার আগের স্মৃতি মনে পড়ে যায় ।
    তাই সে তার স্ত্রী হত্যার প্রতিশোধ নিতে মার্টিন এর খোজে বেরিয়ে যায় এবং তাকে মেরে ফেলে। তো আপনারা কি ভাবছেন আমি পুরো স্টোরি বলে দিয়েছি? Ray মার্টিন এর প্রতি প্রতিশোধের মধ্য দিয়ে মুভি শেষ হয়ে গেল ? থামুন এতো মাত্র খেলা শুরু! আপনাদের কে জানতে হবে এই মার্টিন আসলেই কে ছিল? শুধু কি তাই! Ray এর স্ত্রী কি সত্যিই খুন হয়েছে? আপনাদের আরো জানতে হবে ওর দেহের, চিন্তার কন্ট্রোল কার হাতে আছে? Ray কিন্তু সাধারণ এক মানুষ কিন্তু বিজ্ঞানের পরিক্রমায় ও অসীম ক্ষমতাশীল হলেও সে তো কোন রোবট নয়! । আপনাদের জানতে হবে Ray কার হাতের খেলার পুতুল ছিল? সাথে তাও জানতে হবে Ray কি কখনো কারোও হাতের পুতুল ছিল কি না?
    আর প্রজেক্ট ব্লাডশটে তাকে নিয়ে চলছে অজানা গভীর এক ষড়যন্ত্র! এবার আপনাদের পালা! যদি জানতে হয় প্রজেক্ট ব্লাডশট সেই ষড়যন্ত্রের জাল কিভাবে ছিন্ন করে, তাহলে দেখে নিন শীঘ্রই মুভিটি। বোর হওয়ার খুব বেশী চান্স নেই।

    Bloodshot Teaser Trailer Review

    Oct 21, 2019 এ ব্লডশটের টিজার মুক্তির পরে এর ভিওস ছিল প্রায় ১৬ মিলিয়ন বার । যেটা প্রায় সকল সোশ্যাল মিডিয়া এবং ইউটিউব এবং অন্যান্য মাধ্যম এর মাধ্যমে এর ভিওস কাউন্ট করা হয়েছে ।
    Bloodshot-Movie-breakdown-review
    (Image Credit: Sony Pictures/Valiant Entertainment)

    Bloodshot Teaser Trailer Summary

    ∆ প্রথম টিজার প্রকাশিত হয় Oct 21, 2019 এ ।
    ∆ প্রথম টিজারের লাইক সংখ্যা ১ লাখ ৭০ হাজার ।
    ∆ প্রথম টিজারের ডিসলাইক সংখ্যা মাত্র ৫ হাজার ।
    ∆ প্রথম টিজারের ভিওস ছিল প্রায় ১১ মিলিয়ন বার। (শুধুমাত্র ইউটিউব লাইক, ডিসলাইক এবং ভিওস গননা করা হয়েছে)
    ∆ প্রথম টিজারের সময়কাল ছিল ২ মিনিট ২৫ সেকেন্ড ।
    ট্রেইলারের শুরুতেই ভিন ডিজেল ওরফে রে গ্যারিসন কে দেখা যায় তার স্ত্রীর সাথে ঘুড়তে বেরিয়েছে । কিন্তু সেখানে তার স্ত্রী এবং সে নিজে মারা যায় ।
    অন্যদিকে PRS নামে গোপন সংগঠন রে গ্যারিসনের লাশ নিয়ে এক্সপেরিমেন্ট করে তাকে জীবিত করে ন্যানাইট এর মাধ্যমে সেই সাথে তার সকল সৃতি মুছে ফেলে । তবে তার মস্তিষ্ক এবং তার শরির সম্পুর্ণ ওই সংগঠন এর নিয়ন্ত্রনে থাকে । তাকে জীবিত করার পরে এক জন খুনি যোদ্ধা হিসেবে রাখে ওই সংগঠন ।
    একসময় রে গ্যারিসনের সকল সৃতি মনে পড়ে এবং সে "পিআরএস" নামে ওই গোপন সংগঠন এর বিরুদ্ধ্যে লড়তে থাকে ।

    ব্লডশট মুভি ট্রেইলার রিভিউ

    ট্রেইলারের অনেক অংশ যদিও আগের টিজার থেকে নেওয়া । তার পরেও এই ট্রেইলারে অনেক নতুন ক্লু বের হয় সাথে ধুন্ধুমার অ্যাকশন সিক্যুয়েন্স যুক্ত করা হয়েছে ।
    Bloodshot-Movie-trailer-breakdown-review_reviewhax
    (Image Credit: Sony Pictures/Valiant Entertainment)

    Bloodshot Trailer Summary

    ∆ প্রথম ট্রেইলার প্রকাশিত হয়েছে Jan 14, 2020 এ ।
    ∆ প্রথম ট্রেইলারের লাইক সংখ্যা প্রায় ৫০ হাজার ।
    ∆ প্রথম ট্রেইলারের ডিসলাইক সংখ্যা প্রায় ২ হাজার ।
    ∆ প্রথম ট্রেইলারের ভিওস মাত্র ১.৫ মিলিয়ন বার । ( শুধুমাত্র ইউটিউব লাইক, ডিসলাইক এবং ভিওস গননা করা হয়েছে )
    ∆ প্রথম ট্রেইলারের ব্যাপ্তিকাল ছিল ১ মিনিট ৩৭ সেকেন্ড ।
    যদিও এই ট্রেইলারে নতুনত্ব কিছু ছিল না । তবে এখানে নতুন অ্যাকশন সিক্যুয়েন্স যুক্ত করা হয় ।
    এখন দেখা বিষয় হলো মার্ভেল স্টুডিওস এর গার্ডিয়ান অফ দ্যা গ্যালাক্সি সিনেমায় গ্রুট চরিত্রে অভিনয় করার পরে ভীন ডিজেল ব্লডশট চরিত্রটি কিভাবে ফুটিয়ে তোলে ।
    কোভিড-১৯ এর কারনে বর্তমানে পুরো বিশ্ব লকডাওন রয়েছে । লোকজন হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছে । তাই ঘরে বসে আপনি চাইলেই সময় কাটানোর জন্য বিভিন্ন মুভি ও সিরিজ দেখতে পারেন । পাশাপাশি পরিবারের সাথে মিলে আপনি ডিজনি প্লাসের একাধিক অরিজিনাল সিরিজ দেখতে পারেন ।
    যার মধ্যে স্টার ওয়ার্সের স্পিন অফ সিরিজ The Mandalorian - ম্যান্ডোলরিয়ান সিজন ১ দেখতে পারেন । অন্যদিকে নেটফ্লিক্সে এই সময়ে একাধিক নতুন সিরিজ ও মুভি রিলিজ দেওয়া হচ্ছে ।
    যার মধ্যে ক্রিস হেমসওয়ার্থ অভিনীত অ্যাকশন থ্রীলার সিনেমা এক্সট্রাকশন রয়েছে যেটি আগামী ২৪শে এপ্রিল মুক্তি পাবে ।
    ড্রাগ কার্টেল নিয়ে ও মানি লন্ডারিং নিয়ে তৈরি Ozark Season 3 - ওযারক এর সিজন ৩ রিলিজ হবে আগামী সপ্তাহে ।
    ব্লডশট মুভি বক্স অফিস কালেকশন
    Disclosure: This post May contains affiliate links that support our Blog. When you purchase something after clicking an affiliate link, we may receive a commission. Also Note That We Are Not Responsible For Any Third-party Websites Link Contents
    MD: Ashikur Rahman

    আমি একজন মুভি ও সিরিজ লাভার। সুপারহিরো জেনরে আমি মার্ভেল ও ডিসি সকলের তৈরী সিনেমাই পছন্দ করি দেখতে। আমার ব্লগ সাইটঃ www.Tvhex.Com চাইলে আমাকে ফেসবুক ও টুইটারে ফলো করতে পারেন। facebook twitter

    Post a Comment

    আপনাদের কোন কিছু জানার থাকলে আমাদের কে কমেন্ট করে জানাতে পারেন ।



    if you have something to say, “Please Comment your Opinion ” Thank You.

    Previous Post Next Post